1. admin@vorersongbad.com : admin :
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১২:১৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :
বাংলাদেশের জনপ্রিয় অনলাইন  নিউজ পোর্টাল "দৈনিক ভোরের সংবাদ" এ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের ই–মেইলেঃ vorersongbad21@gmail.com মোবাইল নাম্বারঃ 01777602610/01779208393
শিরোনাম :
শুরু হয়েছে নওতাপ ২০২৪ ইং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কৃষক দল সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ইছামতি নদী খননে স্বস্তির দেখা মিলেছে কালিঞ্জাবাসীর রায়গঞ্জ পাঙ্গাসী ইউনিয়ন উন্নয়ন ফোরামের উদ্যোগে এসএসসি দাখিল সমমান পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে  শোভনই হবে রায়গঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শোভন সরকার কে দেখতে চায় রায়গঞ্জবাসী বেলকুচি পৌর নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী আব্দুল মোন্নাফ মোল্লার মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। রায়গঞ্জে জমে উঠেছে কাঁচা পাকা কাঁঠালের হাট রায়গঞ্জের আঞ্চলিক মহাসড়কের বেহাল দশা জনভোগান্তি চরমে সকল বাধা বিপত্তি  অতিক্রম করে এগিয়ে চলেছেন রায়গঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম নান্নু

কালের আবর্তে রায়গঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে হুক্কা

মোঃ মোকাদ্দেস হোসাইন সোহান, ষ্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৭ মে, ২০২৪
  • ২২ বার পঠিত

কালের আবর্তে রায়গঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে হুক্কা

মোঃ মোকাদ্দেস হোসাইন সোহান, স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ, সিরাজগঞ্জঃ

কালের আবর্তে সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে হুক্কা। তত্ত্ব অনুসন্ধানে মুরব্বিদের সাথে কথা বলে জানা যায়, একসময় ষাঁট দশকেও জনপ্রিয় ধূমপান মাধ্যম ছিল হুক্কা। কৃষক শ্রমিক বাড়ির উঠোনে সকালে বিকালে কাজের ফাঁকে, নানান ভঙ্গিতে হুক্কা টানতেন। এতে করে কৃষকরা পরিতৃপ্ত পেতো। জমিদারেরা, বড়লোকেরা ও গ্রামের মোড়লরা নানাভাবে তামাক তৈরি করে হুক্কায় টান দিত। এদিকে উপজেলায়র গ্রামপাঙ্গাসী গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তি মোঃ আবুল কাশেম (৯৫) এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমাদের সময় জনপ্রিয় একমাত্র মাধ্যম ছিল হুক্কা। আবহমান গ্রাম বাংলার মানুষেরা হুক্কার মাধ্যমে তামাক পানে  অভ্যস্ত ছিলেন। দিনমজুর থেকে শুরু করে জমিদার বাড়ি পর্যন্ত হুক্কার প্রচলন ছিল সর্বত্র। প্রবীণ মানুষেরা  এই হুক্কার মধ্যেই খুঁজে পান ইতিহাস, ঐতিহ্য আর মাটির গন্ধ। গ্রামের বৈঠকখানা গুলোতে আড্ডার মাধ্যমে পালাক্রমে  হুক্কা টানতো বিভিন্ন বয়সের পুরুষেরা। এখন সেই চিরাচরিত দৃশ্যটি আর দেখা যায় না। কালের আবর্তে হারিয়ে গেছে সেই ঐতিহ্য। এক কথায় বলা যায়, যুগের সাথে তাল মিলিয়ে হুক্কার স্থান দখল করে নিয়েছে, বিড়ি সিগারেট, গাজা সহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য। যা মানুষের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। সত্যিকার অর্থে কালের আবর্তে উপজেলা থেকে প্রায় হাড়িয়ে গেছে এক সময়কার ঐতিহ্যবাহী হুক্কা।

Facebook Comments Box

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৪ "দৈনিক ভোরের সংবাদ"
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park